শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:৪৭ অপরাহ্ন

নোটিস :
কিছুদিনের জন্য আপনার ঘরে থাকাটাই হবে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে সবচেয়ে বড় যুদ্ধ - আসুন আমরা সবাই ঘরে থাকি সুস্থ থাকি করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ি- ইউএনও কাবিরুল ইসলাম খান - শিবপুর উপজেলা
শিরোনাম :
সাড়ে ১২ হাজার দুস্থ পরিবারের পাশে মজিদ মোল্লা ফাউন্ডেশন শহরের ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত: সভাপতি মাইনউদ্দিন, সম্পাদক খোকন শিবপুর আওয়ামীলীগ নেতা অরুন খানের ৩য় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া শিবপুরে বড় ভাইদের অত্যাচার থেকে রক্ষা পেতে ছোট ভাইয়ের সংবাদ সম্মেলন শিবপুর সাধারচর ইউনিয়নের মানুষের সেবায় নিজেকে বিলিয়ে দিতে চান- জাহিদুল হক দিপু পাঁচদোনা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রি- বার্ষিক কাউন্সিল অনুষ্ঠিত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জাহিদ সরকারের ব্যাপক গণসংযোগ শিবপুরে ৩৪নং প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ শিবপুরে অবৈধ বালু উত্তোলন রোধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা শিবপুর সাধারচর ইউনিয়নের জনগণের পাশে থেকে সেবা করতে চাই জাহিদুল হক দিপু

দুই ম্যাচ রেখেই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ জয়

একের পর এক ইতিহাস গড়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি জিতেই এই ফরমেটে প্রথমবার অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর স্বাদ পেয়েছিল টাইগাররা।

সেই ইতিহাসের পাতায় নতুন রেকর্ড যোগ হয় টানা দ্বিতীয় জয়ে। সামনে ছিল প্রথমবারের মত অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে যে কোনো ফরমেটে সিরিজ জয়ের হাতছানি। সেই ইতিহাসও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল গড়ে ফেলল দুই ম্যাচ হাতে রেখেই।

আজ (শুক্রবার) মিরপুরে অস্ট্রেলিয়াকে ১০ রানে হারিয়ে পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজে টানা তৃতীয় জয় পেয়েছে ঘরের মাঠের বাংলাদেশ।

১২৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে দ্বিতীয় ওভারেই উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া। এরপর মার্শ-ম্যাকডারমট ৬৩ রানের জুটি গড়ে প্রতিরোধ গড়েন। ম্যাকডারমটকে সাকিব ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙেন। এরপর হেনরিকস-মার্শকে ফিরিয়ে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন। শেষ দুই ওভারে প্রয়োজন ছিল ২৩। ১৯তম ওভারে মোস্তাফিজ মাত্র ১ রান দিয়ে ম্যাচের নাটাই নিজেদের হাতে নিয়ে নেন। শেষ ওভারে অস্ট্রেলিয়ার প্রয়োজন ছিল ২২। কিন্তু ১১৭ রানের বেশি করতে পারেনি অজিরা। বাংলাদেশ জিতেছে ১০ রানে। টানা তিন ম্যাচ জিতে প্রথমবারের মতো যে কোনো ফরম্যাটের ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ জেতে বাংলাদেশ।

ভয়ঙ্কর মার্শকে ফিরিয়ে উল্লাসে ভাসালেন শরিফুল

আগের দুই ম্যাচে মিচেল মার্শ একাই লড়েছিলেন। তবে ৪৫ রানের বেশি করতে পারেননি। দুই ম্যাচেই আউট হয়েছেন একই অঙ্কে (৪৫)। এবারো অস্ট্রেলিয়ার ত্রাতা মার্শই। ওয়েডের আউটের পর দ্বিতীয় ওভারে ক্রিজে আসেন তিনি; এরপর খেলতে থাকেন দারুণ। ৪৫ বলে তুলে নিলেন হাফ সেঞ্চুরি। এটি তার ক্যারিয়ারের চতুর্থ ফিফটি। এরপর মার্শকে আর বেশি এগোতে দেননি শরিফুল। মাত্র ১ রান যোগ করেই ফেরেন সাজঘরে। শরিফুলের শট লেন্থের বল লং অফে হাওয়ায় ভাসান মার্শ, ম্যাচ ধরতে ভুল করেননি নাঈম। ৪৭ বলে ৫১ রান করেন মার্শ।

সাকিবের পর শরিফুলের আঘাত

জীবন পাওয়া ম্যাকডারমটকে বোল্ড করে ফেরান সাকিব। তারর ব্যাট থেকে আসে ৩৫ রান। পরের ওভারের প্রথম বলেই আঘাত হানেন শরিফুল। মিডঅনে ক্যাচ দিতে বাধ্য করেন হেনরিকসকে। ৩ বলে ২ রান করেন তিনি। অস্ট্রেলিয়ার জোড়া উইকেট নিয়ে চেপে ধরেছে বাংলাদেশ।

গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ক্যাচ ফেললেন শরিফুল

১৩তম ওভারের প্রথম বল। ম্যাকডারমটের শরীর বরাবর করা মোস্তাফিজুরের লেন্থ বল পুল করলে সরাসরি লং লেগে শরিফুলের হাতে যায়। কিন্তু তালুবন্দি করতে পারেননি শরিফুল। ৩২ রানের সময় জীবন পান এই ব্যাটসম্যান।

মার্শ-মাহমুদউল্লাহর বাগবিতণ্ডা

অস্ট্রেলিয়া ইনিংসের দশম ওভারের পঞ্চম বল।  ফুলিশ মিডলে করা শরিফুলের বল মার্শের শরীরে লাগে। রাগ ধরে রাখতে পারেননি এই অস্ট্রেলিয়ান। শরিফুলকে কী একটা যেন বললেন। এরপর এগিয়ে আসেন মাহমুদউল্লাহ। দুজনের মধ্যে কিছুক্ষণ উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় চলে। শেষ পর্যন্ত আম্পায়ারের সহায়তায় থামেন দুজনে।

হুমকি হয়ে দাঁড়াচ্ছেন মার্শ-ম্যাকডারমট

ব্যাটিং অর্ডার ওপরে উঠে এসেও কিছু করতে পারেননি ম্যাথু ওয়েড। শুরুতেই ফেরেন নাসুমের ঘূর্ণিতে। এরপর ক্রিজে এসে খেলার হাল ধরেন মিচেল মার্শ। তিনি প্রথম দুই দিনেও বাংলাদেশকে ভুগিয়েছিলেন। এই ম্যাচে বেন ম্যাকডারমটকে সঙ্গে নিয়ে খেলতে থাকেন সাবলীল খেলা। এখন পর্যন্ত ৪৫ বলে ৩৭ রানের জুটি গড়েন। হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছেন বাংলাদেশের জয়ে।

পাওয়ার প্লেতে ‘বোতলবন্দি’ অস্ট্রেলিয়া

পাওয়ার প্লেতে দুর্দান্ত বাংলাদেশ। ৬ ওভারে ২০ রান খরচায় ১ উইকেট নিয়েছে তারা অস্ট্রেলিয়ার। নাসুম আহমেদ, সাকিব আল হাসান ও মেহেদী হাসান মিলে প্রথম পাঁচ ওভার করেন। তিন স্পিনারের বলে মাত্র ১৭ ওভার করে অজিরা। জবাবে দ্বিতীয় ওভারে নাসুমের শিকার হন অধিনায়ক ম্যাথু ওয়েড। স্পিন সামলাতে ব্যর্থ অস্ট্রেলিয়া ষষ্ঠ ওভারে আরেক বাধার মুখোমুখি হয়, ডিফিকাল্ট কাস্টমার মোস্তাফিজুর রহমান। তার পেসে মাত্র ৩ রান তোলে ওই ওভারে।

শুরুতেই ওয়েডকে ফেরালেন নাসুম

ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারের তৃতীয় বলে অজি অধিনায়ক ম্যাথু ওয়েডকে সাজঘরে পাঠালেন নাসুম আহমেদ। ওয়েড নাসুমের মিডল ও লেগ স্ট্যাম্পের মাঝে ফেলা বল ফাইন লেগে খেলেছিলেন; ব্যাটে-বলে ঠিক মতো হয়নি; বৃত্তের মধ্যেই ধরা পড়েন শরিফুলের হাতে। ৫ বলে মাত্র ১ রান আসে ওয়েডের ব্যাট থেকে।

এলিসের হ্যাটট্রিক, ১২৮ রানের লক্ষ্য দিয়েছে বাংলাদেশ

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ফিফটিতে অস্ট্রেলিয়াকে ১২৮ রানের চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। চারে খেলতে নেমে বাংলাদেশ অধিনায়ক ব্যাটিং করেন ইনিংসের শেষ ওভার পর্যন্ত। মাহমুদউল্লাহ ৫২ বলে দেখা পান হাফসেঞ্চুরির। ৪টি চারে ইনিংসটি সাজানো ছিল। শেষ ওভারে হ্যাটট্রিক করেন অস্ট্রেলিয়ার অভিষিক্ত বোলার নাথান এলিস। ফিফটির পর এলিসের বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন মাহমুদউল্লাহ। পরের বলে মোস্তাফিজকে ফেরান তিনি। শেষ বলে মেহেদীকে ফিরিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম ম্যাচেই হ্যাটট্রিক গড়েন এই পেসার। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এলিস প্রথম বোলার যিনি অভিষেকেই হ্যাটট্রিকের দেখা পান। নির্ধারিত ওভারে নয় উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ সংগ্রহ করে ১২৭ রান।

বাংলাদেশের ইনিংস শুরু হয় জোড়া উইকেট হারিয়ে। ৩ রান না হতেই ফেরেন সৌম্য-নাঈম। খেলার হাল ধরেন সাকিব-মাহমুদউল্লাহ। দুজনের ৪৪ রানের জুটিতে বাংলাদেশ ম্যাচে ফেরে। সাকিব ১৭ বলে ২৬ রান করে ফিরলে ভাঙে এই জুটি। এরপর ক্রিজে এসে মাহমুদউল্লার সঙ্গে দারুণ খেলতে থাকেন আফিফ। কিন্তু ১৩ বলে ১৯ রানের সময় আফিফ ফেরেন রানআউটে। ক্রিজে এসে দ্রুত ফেরেন শামীম পাটোয়ারি। এবার সোহান এসে দারুণ খেলতে থাকেন; কিন্তু তিনিও ৫ বলে ১১ রান করে ফেরেন রানআউটে। এরপর হাল ধরেন মাহমুদউল্লাহ-মেহেদী। দুজনের জুটি থেকে আসে ২৫ বলে ৩০ রান।

সামাজিক যোগাযোগ এ শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২১ নরসিংদী নিউজ ২৪
কারিগরি সহযোগীতায় : ইজি থিমস| ইজি আইটি সল্যুশন